ভুয়া সংবাদ শনাক্তে সাহায্য করবে গেইম

ভুয়া সংবাদ শনাক্তে সাহায্য করবে গেইম
অনলাইনে কীভাবে ছড়ায় ভুয়া সংবাদ আর ষড়যন্ত্র তত্ত্ব?- এই প্রশ্নের জবাব বুঝতে সহায়তার উদ্দেশ্যে যুক্তরাজের ইউনিভার্সিটি অফ কেমব্রিজ-এ নতুন একটি গেইম বানানো হয়েছে।

Source: BD NEWS 24

চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে খুন, মারধরের সেল্‌ফি

চুরির অভিযোগে যুবককে পিটিয়ে খুন, মারধরের সেল্‌ফি
চুরির অভিযোগে আদিবাসী এক যুবককে বেঁধে বেধড়ক পেটানো হচ্ছে। আর সেই নৃশংসতাকে ফ্রেমবন্দি করতে সেলফি তুলতে ব্যস্ত হয়ে পড়েছে জনতা।

Source: BD NEWS 24

বিতর্কিত নির্বাচন হলে পরিণতি অমঙ্গলকর: সুজন

বিতর্কিত নির্বাচন হলে পরিণতি অমঙ্গলকর: সুজন
নির্বাচন ‘ফের বির্তকিত’ হলে পরিণতি অমঙ্গলজনক হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন) সম্পাদক বদিউল আলম মজুমদার।

Source: BD NEWS 24

মাদক ধরিয়ে দেয়ায় অপহরণ

মাদক ধরিয়ে দেয়ায় অপহরণ

মাদক ধরিয়ে দেয়ায় অপহরণকুমিল্লা প্রতিনিধি
কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে ফেনসিডিল ভর্তি একটি পিকআপভ্যান পুলিশকে ধরিয়ে দেয়ায় মাজেদ মিয়া নামের এক ব্যক্তিকে অপহরণ করা হয়। পরে ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে চোরাকারবারীরা। এ ঘটনার একদিন পর পুলিশ শুক্রবার অপহৃত মাজেদকে কুমিল্লা শহর থেকে উদ্ধার এবং চোরাকারবারী চক্রের সদস্য আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করে। শনিবার তাদের আদালতে সোপর্দ করা হবে বলে পুলিশ জানিয়েছে। জানা যায়, উপজেলার আমানগন্ডা এলাকা থেকে গত বুধবার রাতে পুলিশ ৯৭০ বোতল ফেনসিডিল ভর্তি একটি পিকআপ ভ্যান আটক করে। এসময় চোরাকারবারীরা পালিয়ে যায়। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার আমানগন্ডা গ্রামের ইসমাইল মিয়ার ছেলে আনোয়ার হোসেন (২৭), তার ভাই বেলাল হোসেন (৩৫) ও জেলার আদর্শ সদর উপজেলার সাওয়ালপুর গ্রামের হানিফ মিয়ার (৩০) বিরুদ্ধে মাদক আইনে চৌদ্দগ্রাম থানায় মামলা দায়ের করা হয়। এদিকে পুলিশকে মাদকসহ পিকআপভ্যান ধরিয়ে দেয়ায় বৃহস্পতিবার আমানগন্ডা গ্রামের মতিউর রহমান তনুর ছেলে মাজেদ মিয়াকে (২৩) ওই গ্রাম থেকে অপহরণ করে নিয়ে যায় চোরাকারবারীরা। পরে তারা মাজেদ মিয়ার বোন তাহমিনার কাছে মোবাইল ফোনে মাদক ও পিকআপভ্যানের মূল্য বাবদ ১৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।  চৌদ্দগ্রাম থানার ওসি আবু ফয়সল জানান, মোবাইল প্রযুক্তি ব্যবহার করে শুক্রবার অপহৃত মাজেদ মিয়াকে কুমিল্লা শহর থেকে উদ্ধার এবং চোরাকারবারী চক্রের সদস্য আনোয়ার হোসেনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে বিকালে ওই চোরাকারবারীদের বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় আরেকটি অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। শনিবার তাদেরকে আদালতে সোপর্দ করা হবে। গ্রেফতারকৃত আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে মাদক আইনে আরও ৩টি মামলা রয়েছে বলে ওসি জানিয়েছেন। ইত্তেফাক/আরকেজি

(function() {
var referer=””;try{if(referer=document.referrer,”undefined”==typeof referer)throw”undefined”}catch(exception){referer=document.location.href,(“”==referer||”undefined”==typeof referer)&&(referer=document.URL)}referer=referer.substr(0,700);
var rcel = document.createElement(“script”);
rcel.id = ‘rc_’ + Math.floor(Math.random() * 1000);
rcel.type = ‘text/javascript’;
rcel.src = “http://trends.revcontent.com/serve.js.php?w=75227&t=”+rcel.id+”&c=”+(new Date()).getTime()+”&width=”+(window.outerWidth || document.documentElement.clientWidth)+”&referer=”+referer;
rcel.async = true;
var rcds = document.getElementById(“rcjsload_83982d”); rcds.appendChild(rcel);
})();

© ittefaq.com.bd



Source: Ittefacq News

নাতি-নাতনির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ছুটির বিকেল

নাতি-নাতনির সঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর ছুটির বিকেল
ছোট্ট নাতনির চুলের বেণী করে দিচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা; গণভবনের লনে তার হাত ধরে টানছেন ওই নাতনি ও তার ছোট ভাই- দুষ্টুমির হাসিমাখা নাতি নাতনিকে প্রধানমন্ত্রীর সামলানোর চেষ্টা।

Source: BD NEWS 24

দুর্নীতিবাজদের পক্ষে জনসমর্থন বাড়ে না: কাদের

দুর্নীতিবাজদের পক্ষে জনসমর্থন বাড়ে না: কাদের

দুর্নীতিবাজদের পক্ষে জনসমর্থন বাড়ে না: কাদেরবিশেষ প্রতিনিধি
সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, বিএনপি নেতাদের অতিকথন তাদের ভোট কমাবে। কারণ দুর্নীতিবাজের পক্ষে জনসমর্থন বাড়ে না। প্রতিদিন আওয়ামী লীগের ১০ লাখ ভোট বাড়ছে আর দুর্নীতির জন্য বিএনপির ১০ লাখ করে ভোট কমছে। শুক্রবার বিকালে বঙ্গবন্ধু এভিনিউয়ে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ শাখা আওয়ামী লীগের মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। ঐতিহাসিক ৭ই মার্চ সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে আওয়ামী লীগ আয়োজিত জনসভা সফল করতে এ মতবিনিময় সভার আয়োজন করা হয়। ‘খালেদা জিয়াকে একদিন কারাগারে রাখা মানে বিএনপির ১০ লাখ ভোট বৃদ্ধি পাবে, আওয়ামী লীগের ১০ লাখ  ভোট কমবে’ মর্মে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদের বক্তব্যের সমালোচনা করে ওবায়দুল কাদের আরো বলেন, ‘বড় বড় কথা বলেন ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ। তিনি দেশের রাজনীতির বহুরূপী নেতা, ডিগবাজিতে ওস্তাদ। তিনি এখন শান্তিপূর্ণ আন্দোলনে যাচ্ছেন। শান্তিপূর্ণ আন্দোলন, না আস্তে আস্তে অশান্তির ক্ষেত্র তৈরি করছেন? শান্তির কথা বলে জনগণের সহানুভূতি পেতে চান? দেশের মানুষ আপনাদের দুর্নীতির পক্ষে না।’  তিনি বলেন, মওদুদ আহমদ বলেছেন, ‘বেগম জিয়া জেলে থাকলে দৈনিক বিএনপির ১০ লাখ ভোট বাড়ে, আওয়ামী লীগের ১০ লাখ ভোট কমবে।’ এতদিন জানতাম ফখরুল ইসলাম আলমগীর জ্যোতিষ বিদ্যা রপ্ত করেছেন। জানতাম, বিএনপিতে সংখ্যাতত্ত্বের হিসাব একমাত্র ফখরুলই দেন। একবার বলেন আওয়ামী লীগ ২৫ সিট পাবে, আবার বলে ৩০ সিট পাবে। এইভাবে আগামী নির্বাচনের সংখ্যাতত্ত্ব মিলিয়ে দিচ্ছেন। সেতুমন্ত্রী বলেন, ভোট দেবে দেশের জনগণ, আর জ্যোতিষ ফখরুল একেকবার একেক সংখ্যাতত্ত্ব দিচ্ছেন। এখন দেখি, মওদুদ আহমদও নেমেছেন নতুন জ্যোতিষী হিসেবে। তিনি এখন মাঠে নেমেছেন। ভোট বাড়ার হিসাব দিচ্ছেন। প্রমাণ আছে? আমাদের কাছে প্রমাণ আছে, সিলেট, বরিশাল ও রাজশাহীর জনসভায় এর প্রমাণ দেখিয়ে দিয়েছে আওয়ামী লীগ।  ওবায়দুল কাদের বলেন, তৃণমূলের কর্মীরাই আওয়ামী লীগের প্রাণ। এ তৃণমূলের কর্মীবাহিনী আছে বলেই আওয়ামী লীগ টিকে আছে। এ কর্মীরা কখনো আপোষ করেনি, মাথা নত করেনি। যার প্রমাণ ১/১১। সেদিন কর্মীরা ঐক্যবদ্ধ ছিল বলে মাইনাস টু ফর্মুলার চক্রান্ত বাস্তাবায়ন হয়নি। সুসময় আমাদের জীবনে খুব বেশি সময়ের জন্য আসেনি। ক্ষমতায়  থেকেও আমরা যে সুসময়ে আছি, এ কথা দাবি করার কোনো অবকাশ নেই। এখনও মাঝে মাঝে দুঃসময় আসে।  তিনি বলেন, এখনও সংকটমুক্ত তা বলা যাবে না। এখনও ষড়যন্ত্র চলছে। তবে এ সময়ে আমাদের সবচেয়ে বড় শক্তি শেখ হাসিনার উন্নয়ন-অর্জনে, তার সততা ও কর্মঠ নেতৃত্বে এতটাই খুশি যে, সারাদেশের মানুষ এখন ঐক্যবদ্ধ। যে কারণে জঙ্গিবাদী শক্তি অনেকটাই নিষ্ক্রিয়। পুলিশ র‌্যাব ও সেনাবাহিনীর প্রতিরোধের মুখে সন্ত্রাস-জঙ্গিবাদ নিয়ন্ত্রিত ও দুর্বল। কিন্তু তারা তাদের পথ থেকে সরে যায়নি। তাই সতর্ক থাকতে হবে।  ইত্তেফাক/এমআই

(function() {
var referer=””;try{if(referer=document.referrer,”undefined”==typeof referer)throw”undefined”}catch(exception){referer=document.location.href,(“”==referer||”undefined”==typeof referer)&&(referer=document.URL)}referer=referer.substr(0,700);
var rcel = document.createElement(“script”);
rcel.id = ‘rc_’ + Math.floor(Math.random() * 1000);
rcel.type = ‘text/javascript’;
rcel.src = “http://trends.revcontent.com/serve.js.php?w=75227&t=”+rcel.id+”&c=”+(new Date()).getTime()+”&width=”+(window.outerWidth || document.documentElement.clientWidth)+”&referer=”+referer;
rcel.async = true;
var rcds = document.getElementById(“rcjsload_83982d”); rcds.appendChild(rcel);
})();

© ittefaq.com.bd



Source: Ittefacq News