নববর্ষ উপলক্ষে মিয়ানমারে সাড়ে আট হাজার বন্দীর মুক্তি

নববর্ষ উপলক্ষে মিয়ানমারে সাড়ে আট হাজার বন্দীর মুক্তি

নববর্ষ উপলক্ষে মিয়ানমারে সাড়ে আট হাজার বন্দীর মুক্তিঅনলাইন ডেস্ক
মিয়ানমারের প্রেসিডেন্ট মঙ্গলবার সাড়ে আট হাজারেরও বেশি বন্দীকে মুক্তি দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন। এদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য সংখ্যক রাজনৈতিক বন্দীও রয়েছে। দেশটির ঐতিহ্যবাহী নববর্ষ উপলক্ষে বার্ষিক ক্ষমার অংশ হিসেবে এসব বন্দীকে মুক্তি দেয়া হচ্ছে। খবর বার্তা সংস্থা রয়টার্সের। গতমাসে দায়িত্ব নেয়া প্রেসিডেন্ট উইন মিন্ত বলেন, নতুন বছর থিংইয়ান উপলক্ষে এসব বন্দীকে মানবিক বিবেচনায় মুক্তি দেয়া হচ্ছে। মিয়ানমারে নতুন বছরকে থিংইয়ান বলা হয়। বিশেষ ক্ষমার আওতায় যারা মুক্তি পাচ্ছেন তাদের অধিকাংশই মাদক অপরাধী, ৫০ জন বিদেশী এবং ৩৬ জন রাজনৈতিক বন্দী রয়েছে।  দেশটিতে জান্তা সরকারের পাঁচ দশকের বর্বর শাসন শেষে ২০১১ সাল থেকে হাজার হাজার বন্দীকে মুক্তি দেয়া হয়। এছাড়া ২০১৬ সালে অং সান সু চি’র নেতৃত্বে বেসামরিক সরকার ক্ষমতায় আসার পর পরই শত শত রাজনৈতিক বন্দীকে মুক্তি দেয়া হয়েছে। রয়টার্স। ইত্তেফাক/সেতু 

(function() {
var referer=””;try{if(referer=document.referrer,”undefined”==typeof referer)throw”undefined”}catch(exception){referer=document.location.href,(“”==referer||”undefined”==typeof referer)&&(referer=document.URL)}referer=referer.substr(0,700);
var rcel = document.createElement(“script”);
rcel.id = ‘rc_’ + Math.floor(Math.random() * 1000);
rcel.type = ‘text/javascript’;
rcel.src = “http://trends.revcontent.com/serve.js.php?w=75227&t=”+rcel.id+”&c=”+(new Date()).getTime()+”&width=”+(window.outerWidth || document.documentElement.clientWidth)+”&referer=”+referer;
rcel.async = true;
var rcds = document.getElementById(“rcjsload_83982d”); rcds.appendChild(rcel);
})();

© ittefaq.com.bd



Source: Ittefacq News